নিয়মে বাঁধা হৃদয় – মাধব মন্ডল

একটা খুব সাধারণ ঘটনা একরাম দোকরাম করে যেদিন কোর্টে উঠল,কী বলব গোটা  মার্কেটটা হি হি হো হো হাসতে হাসতে সবার আগে কোর্টে ঢুকে গেল।আমার হাত বাঁধা,পায়েও ভারী শেকল । কিন্তু আমার মাথা আমাকে বলছে,তুমি হাসো,একটু হাসো ঠোঁটের কোণে।

তাই দু’দালান হাসি বেঁধেছি, আমার লাল লাল ঠোঁটে।

একরাম দোকরাম করা সওয়াল জবাব অনেক গিললাম ক’মাসে।

আমি কান চুলকাতে চাই,জিভও । কোন উপায় না দেখে আমি তিনজন মহিলা এবং তিনজন আত্মজার দিকে আউল বাউল চোখে তাকাই।তারা একে একে আমাকে সপাটে ছক্কা হাঁকায়।আমি আমার নতুন পরিচয়ে আটকে গেছি । আমি লোকদের দেখি । কোথাও কোন  শিশুকে দেখতে পাচ্ছি না কেন!!

রায় পড়ে শোনানো হচ্ছে । আমি কিছু বলতে চাই,কিন্তু চারদিকে এত আগুনের গোলা ! মহামান্য তিনজন, তোমাদের আজ আর মনে নেই কী আকুল পাকুল করেছি,পেটে ভাত না দিয়ে মনে গরম বাতাস খেয়েছি,কোনটা দিন আর কোনটা রাত মন থেকে উড়ে গেছে,ভাবতামও আমিই নোবেলের যোগ্য।

ও আমার আত্মজারা,তোদেরও আর মনে নেই,নিজের কাজ চুলোয় দিয়ে কীভাবে নিমের ডগা থেকে শিশির এনেছি।

মহামান্য  লোকজন,আপনারাও একটা সময় কত বাহবা ছুঁড়েছিলেন,সেটা তাহলে ভুলভুলাইয়ার ধাঁধা!!আপনারাও তাহলে খুবই আধুনিক!?

এই  গুনীরা  বলছে, এ লোকটা সত্যিই হৃদয়কে  নিয়মে বাঁধেনি তাই……..

 

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *