একটু নুনভাত জোগানোর জন্য

বন্ধুদল  //  সুদীপ ঘোষাল

আমার বন্ধুরা একত্রে  সমাজ সেবার প্রচেষ্টায় আছে । রাস্তার অভুক্ত মানুষের মুখে একটু নুনভাত জোগানোর জন্য ওরা ভিক্ষা করে, জীবনমুখী গান শুনিয়ে । অসীম গান করে,বিচ্ছু একতারা বাজায় । অমিত আর অনিন্দিতা সুরে সুর মিলিয়ে স্বপ্ন দেখে । ওরা এখনও স্বপ্ন দেখে সবাইকে পেট ভরে খাওয়ানোর স্বপ্ন । হয়তো চিরকাল দেখে যাবে নীরব স্ট্যাচুর মত।
তারা বন্ধু হয়ে আছে যুগে যুগে মানুষের অন্তরে…

.

.

প্রজাপতিদের চঞ্চলতা  // 

সত্যেন্দ্রনাথ পাইন

এক চিলতে আমার ঘর নৈঃশব্দ্যে ঘেরা
 বই ঠাসা
রঙীন মলাটে বাঁধানো মহাভারত
রবীঠাকুরের গীতাঞ্জলি সঞ্চয়িতা সবাই
বাদামি কাগজে ছেঁড়া দুর্দম
       আঘাতে ন্যাতানো
জানলার কাঁচে টোক্কা দেয়
 ছোট্ট টুনটুনিটা অনবরত
চঞ্চলতায় কী দারুণ শব্দ টানটান
     চারদিক ঘোরে।
সোনালী সূর্যের আলো লাবণ্যে ফুটফুটে
দামোদরের পাড় ধরে ঘুরঘুর করে
     জানান দেয়
উত্তাল উচ্ছ্বল মায়াময়
স্বপ্নে বিভোর। রাতে উছলে ওঠে
জোনাকি দের চঞ্চলতা
বদলে যায় জীবনের প্রজাপতি দের
      অবিরাম ওড়াওড়ি।
.

অসহায় অবস্থান //  সত্যেন্দ্রনাথ পাইন

আমি কবি নই
   কবিতা ঠিক আসে না
আমি লেখক নই
  লেখার জন্য উপযুক্ত রসদ আমার যোগাড়ে নেই
আমি বিশ্বাসঘাতক বেইমান নই
   আমি খুনী নই
   কাউকে বাঁচানো আমার পক্ষে দুঃসাধ্য
    আমি ভিটামিন আয়রণও নই
      কালের বার্তা বহন করি শুধু
আমি দূষিত হাওয়া
   আমি শ্রীহীন লক্ষ্মীছাড়া
   হীন দুর্বল সরল সাদাসিধে
  লাঞ্ছনা গঞ্জনা নিপীড়ন
   সহ্য করেও
 নিশ্চূপ অকেজো জঞ্জালের স্তূপ।
   ভালোবাসা মায়ার জন্য কারোর
        দ্বারস্থ হলেও
গলাধাক্কা খেতে হয় আমায়
আমি পান্না হীরে চুনী বৈদুর্যমনি
   প্রবাল নই
আমাকে ধারণ করলে
 বিষবাষ্প হয়তো উবে যেতে পারে
   হয়তো হয়তো হয়তো
অরন্য সবুজ হতে পারে
আকাশটা আরও ঘণ নীল হতে পারে
.

অসহায় অবস্থান // সত্যেন্দ্রনাথ পাইন

 
ভাজা মশলার গন্ধ
দুর্দান্ত
অসংযমী করে তোলে আমাকে
চূর্ণ করে সুন্দরের লৌহভীম
 
লক্ষ্য চ্যুত হই। বনবাসের কথা
স্মরণে আসে
বৃদ্ধাশ্রম যুযুৎসুর অভিনয়ে
 
উন্মাদ হয় সন্তান শোক
সমাজ সংস্কৃতি বিনোদন হিসেবে
আমাকে
দর্শনের স্পর্শ টুকু দিয়ে
জাগিয়ে তোলে
অসহায় অবস্থান

সাক্ষাৎকার

সাহিত্যশ্রুতি =      লেখার জগতে কি ভাবে এলেন – প্রথম লেখাটির বিষয়ে কিছু বলুন ।
সাজ্জাদ আলম  = ছোটোবেলা থেকেই গল্প ও কবিতা লেখা শুরু, তবে কবিতার চেয়ে ছোটোগল্প লেখার প্রতি একটু বেশী ইন্টেরেস্ট ।
        আমার লেখা ছোটোগল্প ”সামীরা”, চলতি বছরেই  মকtale নামক একটি ম্যাগাজিনে প্রকাশিত হয়. সেটি ছিল এক প্রেমের গল্প, আধুনিক জগতে বাস করেও শুধুমাত্র কিছু কাল্পনিক ও ধর্মান্ধতা বিষয়টিকে তুলে ধরেছিলাম. অনেকেই গল্পটির প্রশংসা করেন ।
 
সাহিত্যশ্রুতি =   লেখা কি শিখে লেখা যায়  না কোনো অনুভবের প্রয়োজন  আছে ? 
সাজ্জাদ আলম  = না! আমার নিজে মনে হয় না যে লিখতে গেলে শিখতে হয়. কারণ শিখে লেখা যায় না. লেখার জন্য আমাদের দুটি জিনিস প্রয়োজন ক. খাতাপেন খ. বিষয়, আর সেই বিষয়ের প্রতি নিজস্ব জ্ঞান ও চিন্তা ভাবনা ।
 
সাহিত্যশ্রুতি =   বাংলা সাহিত্যের ভবিষ্যৎ কি ভাবে আরো উজ্জ্বল করা যায় ?
সাজ্জাদ আলম  = বাংলা সাহিত্যের ভবিষ্যত যে উজ্জ্বল নয়, তা কিন্তু না,বাংলা সাহিত্য প্রাচীন কাল থেকে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র. তবে বাংলা সাহিত্যের ভবিষ্যত ”আরো” উজ্জ্বলতর করতে হলে আমাদের প্রয়োজন বাংলার যুবসমাজ, বাংলার যুবসমাজ সাহিত্যের প্রতি যত বেশি আগ্রহী হবে বাংলা সাহিত্যের ভবিষ্যত ততই উজ্জ্বলতর হবে ।
 
সাহিত্যশ্রুতি =   ইদানিং কোন কোন পত্রিকায় লিখছেন  ?
সাজ্জাদ আলম  = এখন আমি ”মকtale” পত্রিকার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি.তবে এখন অন্য কোনো পত্রিকায় লেখালেখির সঙ্গে আমী যুক্ত নেই ।
 
সাহিত্যশ্রুতি =   ফেসবুক  কি  বাংলা সাহিত্যকে নতুন কোনো আশার আলো দেখাচ্ছে ?
সাজ্জাদ আলম  =আধুনিক যুগের লেখক হয়ে বলতে পারি যে ”হ্যাঁ, সাহিত্যকে অজানা জগতের সামনে তুলে ধরার জন্য ফেসবুক এক অন্যতম প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করছে” ।
 
সাহিত্যশ্রুতি =   . ভালো লেখা  লিখতে গেলে কি  ধরণের বই পড়তে হবে  ?  আমরা কবিতার কথা বলছি , 
সাজ্জাদ আলম  = ভালো কবিতা লিখতে হলে প্রথমেই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, নজরুল পড়তে হবে ।
 
সাহিত্যশ্রুতি =   লেখকের  কোন    গুণ  থাকাটা  সবচেয়ে বেশী জরুরী ?
সাজ্জাদ আলম  = লেখকের নিজস্ব বিষয়ভিত্তিক চিন্তা ভাবনা, জ্ঞান, ও লেখার প্রতি ভালোবাসা থাকাটা অত্যন্ত জরুরী বলে আমি মনে করি ।
 
সাহিত্যশ্রুতি =   বর্তমানে আপনি কি ধরনের লেখা বেশী  লিখছেন ?
সাজ্জাদ আলম  = বর্তমানে আমি প্রেম- বিরহের, সমাজভিত্তিক লেখা বেশী লিখছি ।
 
সাহিত্যশ্রুতি =   আপনার কাছে ভালো লেখার সংজ্ঞা কি ?
সাজ্জাদ আলম  =আমার কাছে ভালো লেখার সংজ্ঞা হল- ”যে লেখা একবার পড়ে আরেকবার পড়ার ইচ্ছা জাগ্রত হবে, এবং পড়ার পর বিষয়টি নিয়ে চিন্তা গড়ে উঠবে” ।
 
সাহিত্যশ্রুতি =   আপনার ভাবনায় পাঠকরা কি খুব উপকৃত হচ্ছেন  ফেসবুকে  প্রকাশিত লেখা  পড়ে ?
সাজ্জাদ আলম  =পাঠকরা আমার মনে হয় ফেসবুকে লেখা প্রকাশিত দেখে খুব খুশি হচ্ছে, কিন্তু তাদের লেখা কোনো সাহিত্য পত্রিকায় প্রকাশিত হয় তাহলে ওরা আরো বেশি খুশি হবে ।
.
.

 ঘুণ //    শ্যামল কুমার রায়

  নিস্তব্ধ পৃথিবী!
নিকষ কালো অন্ধকার ,
একফালি বাঁকা চাঁদ –
ওরই মাঝে পথ দেখায় ।
শব্দের মিছিল সব থেমে গেছে ,
পেটের দায়ে ভোর থেকে ছোটাছুটি করা –
মানুষ সব শয্যা নিয়েছে।
সারাদিনের ক্লান্তিতে সব নিঃশেষ,
পান্তায় পেট ভরিয়ে চলে গেছে ঘুমের দেশ ।
মশা , মাছির উৎপাত –
ঘটায় না ওদের ঘুমে ব্যাঘাত ।
রাজৈশ্বর্যের জন্যে ওরা নয় বিচলিত –
দু’বেলা দুমুঠো গরম ভাতে ওরা খুব সন্তুষ্ট ।
মধ্যরাতে পালঙ্কে , কনকনে শীতে তুমি একা –
অমলিন মানসপটে আজও তোমার ছবি আঁকা ।
বাহিরে ঝিঝির ডাক,ভেতরে ঘুণপোকার কটকট,
শূন্যতা নেমে আসে চোখে ।
বাহিরে নিশ্চয়যান ,
সব শুনশান,
গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন গ্রামীণ হাসপাতাল ,
ঘুম ঘুম চোখ,
কর্তব্যরত চিকিৎসক ,
দরজায় ঠকঠক,
খোলে না ফটক ।
অসহায় চোখ একা জেগে রয় –
ঘুমহীন চোখে তারার পানে চায় ।
ছোট্ট শিশু তখন ঘুমের মধ্যে পরীর দেশে।
নিশি ভোরে বাঁকা চাঁদ ফিকে হয়ে আসে,
 পূব আকাশে রবি মামা মুচকি হাসে ।
দুশ্চিন্তা শেষ,  দূর হতে কানে আসে শব্দের রেশ।
..

অর্থাৎ তুমি নারী //  লেখা – প্রিয়নীল পাল। 

(সিউড়ি, বীরভূম) 
.
 অর্থাৎ তুমি নারী.
আমার ভালবাসা বিপরীত লিঙ্গ-এর প্রতি,
অর্থাৎ তুমি নারী.
আমার স্ব্প্ন দেখানো কল্পনা তুমি,
অর্থাৎ তুমি নারী.
আমার গান গাওয়া কবিতা তুমি,
অর্থাৎ তুমি নারী.
আমার মানসিক শান্তি তুমি,
অর্থাৎ তুমি নারী.
আমার যৌন চাহিদা তুমি,
অর্থাৎ তুমি নারী.
বিবাহ পরবর্তী,সংসার তুমি,
অর্থাৎ তুমি নারী.
আমার সুখ,দুখের ভাগ তুমি,
অর্থাৎ তুমি নারী.
তোমার গর্ভে ,আমার ভ্রুনের বাড়ি,
অর্থাৎ তুমি নারী.
সেই গর্ভে জন্ম তোমার প্রতিচ্ছবি,
তখন তুমি পাপি???
অর্থাৎ আমি নিন্ম সামাজিক প্রানী,অন্য শ্রেনী….
Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: