আলাের ঠিকানা খুঁজে ডুব দিয়ে

ছুটে বেড়াচ্ছি – সুনির্মল চক্রবর্তী

কাকে বলে ‘কুক্কটিকা’

কাকে বলে ‘নীহারিকা’

জানতে জানতেই অনেকদিন গেল

কাকে বলে ‘অগ্ন্যাশয়’

কাকে বলে ‘সন্তর্পণ ‘

শিখতে শেখতেই যুগ পার হয়ে গেল

এখন আমি অনেক কিছু জানি

এখন বেশ শিখেছি মিথ্যার আশ্রয়

শয়তানের প্রশ্রয়ে বড় হয়ে উঠছি

এখন আমার ভয়ে ভূমি

কেঁপে কেঁপে উঠছে

এখন আমার শৌর্যবীর্যর পতাকা

ধুলােয় লুটোচ্ছে

আমার কেমন আতুপুতু ভাব

আমাকে ভালােবাসতে চায়

হিমশীতল হাওয়া অথচ

গরম হাওয়ায় দিগ্বিদিক ভরে উঠেছে

বিজয়ীর হাসি হেসে উদভ্রান্ত’র মতাে

আমি ছুটে বেড়াচ্ছি।

 

.

ঢেউ  –   বিশ্বনাথ প্রামানিক

যেখানেই যাই আঁধারের সঙ্গে দেখা হয়

যেখানে দাঁড়াই ছায়া এসে ধিরে ধরে

তাকালে বিস্ময় দেখি *

চোখ বুজে ছোঁয়া অন্ধকার।

আলাের ঠিকানা খুঁজে ডুব দিয়ে

তরঙ্গে ভেসে মিশে যাই

অতলে আঁধারে।

 

মরদ ফাটক   –   সমরেন্দ্র বিশ্বাস

আমার উলিত হৃদপিণ্ড

সফেদ রেকাবে মাপো

ঘরে এনে পােযষা, বাথরুমে ধােও,

নিয়ন্ত্রিত রাখা শীত-আতপে

শরীরের নদীস্রোত থেকে দেহ তুলে এনে

বন্দী করাে সিরামিকে- ফুলদানে।

নারী আমি, কোন হতভাগ্যে বারবার

রুদ্ধ হই মরদ ফাটকে ?

 

 

ঢেউ   –   বিশ্বনাথ প্রামানিক

যেখানেই যাই আঁধারের সঙ্গে দেখা হয়

যেখানে দাঁড়াই ছায়া এসে ঘিরে ধরে

তাকালে বিস্ময় দেখি

চোখ বুজে ছোঁয়া অন্ধকার।

আলাের ঠিকানা খুঁজে ডুব দিয়ে

তরঙ্গে ভেসে মিশে যাই

অতলে আঁধারে।

 

 

* বাক্প্রতিমা সাহিত্য পত্রিকা  থেকে সংগৃহীত

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *